ঘরে বসে অনলাইনে চাকরি | চাকরি করে আয় করতে ৭টি উপায়

ঘরে বসে অনলাইনে চাকরি করে উপার্জন করতে এমন কিছু আইডি আপনাদের সাথে শেয়ার করব, যেগুলোর মাধ্যমে আপনারা ঘরে বসে অনলাইনে চাকরি করার সুযোগ পাবেন। বর্তমান সময়ে বাংলাদেশের মধ্যে হাজারো ফ্রিল্যান্সার ঘরে বসে অনলাইনে চাকরি করে বৈদেশিক মুদ্রা উপার্জন করছে। আপনি যদি এই আর্টিকেলটি পড়ে থাকেন, তাহলে আপনিও আপনার দক্ষতা ব্যবহার করে ঘরে বসে অনলাইনে চাকরি করে টাকা আয় করতে পারবেন।

Advertisement
Google News Ad Google News Ad

ঘরে বসে অনলাইনে চাকরি করার সুযোগ:

ঘরে বসে অনলাইনে চাকরি করে উপার্জন করার জন্য একাধিক সুযোগ রয়েছে। আজকের এই আর্টিকেলটিতে আমরা এমন কিছু অনলাইন উপার্জন সম্পর্কে আপনার সাথে শেয়ার করব। এগুলোর মাধ্যমে আপনি খুব সহজে অনলাইন থেকে ইনকাম করতে পারবেন। তবে অনলাইন থেকে অর্থ উপার্জন করার জন্য প্রাথমিকভাবে আপনাকে দক্ষতা অর্জন করতে হবে।

কোন কিছু সম্পর্কে না জেনেই উক্ত বিষয় নিয়ে কাজ করে এখান থেকে সফলতা অর্জন করা যায় না। এজন্য আপনি প্রথমেই যে বিষয় নিয়ে অনলাইনে ঘরে বসে কাজ করে অর্থ উপার্জন করতে চাচ্ছেন, সে বিষয়টি সম্পর্কে শেখা শুরু করবেন। যদি আপনি যথেষ্ট ভালো সার্ভিস দিতে পারেন, তাহলেই আপনি অনলাইনে ঘরে বসে চাকরি করে টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

ঘরে বসে অনলাইন থেকে ইনকাম করার ৭টি উপায়

৭টি creative এবং আকর্ষণীয় পদ্ধতি শেয়ার করব যেগুলোর মাধ্যমে আপনি ঘরে বসে অনলাইনে চাকরি করে টাকা উপার্জন করতে পারবেন। যারা অনলাইনে করে বসে টাকা উপার্জন করার স্বপ্ন দেখছেন, তাদের জন্য এই ৭টি পদ্ধতি খুবই কার্যকর হবে। আমি নিজেও ব্যক্তিগতভাবে এখান থেকে কয়েকটি পদ্ধতি অনুসরণ করি যেগুলোর মাধ্যমে আমি অনলাইন থেকে অর্থ উপার্জন করি। এসকল কাজগুলো চাইলে আপনি চাকরির পাশাপাশি করতে পারেন, অথবা এগুলোকে আপনি নিজের চাকরি হিসেবেই গ্রহণ করতে পারেন।

গ্রাফিক ডিজাইনার হিসেবে ঘরে বসে অনলাইনে চাকরি:

বাংলাদেশের গ্রাফিক ডিজাইনারদের চাহিদা অনলাইন মার্কেটপ্লেসে অনেক বেশি রয়েছে। কারণ বাংলাদেশি যারা গ্রাফিক ডিজাইনার রয়েছে তারা বিভিন্ন ক্রিয়েটিভ ডিজাইনগুলো তৈরি করতে বেশি পারদর্শী। ঠিক আপনিও যদি একজন গ্রাফিক ডিজাইনার হিসেবে অনলাইনে চাকরি করে টাকা ইনকাম করতে চান, তাহলে এটি আপনার জন্য অত্যন্ত সুন্দর একটি আইডিয়া হতে পারে। যার মাধ্যমে আপনি ঘরে বসে অনলাইনে চাকরি করেই গ্রাফিক ডিজাইনার হিসেবে টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

একজন গ্রাফিক ডিজাইনার হওয়ার জন্য কি কি বিষয় সম্পর্কে আপনার জ্ঞান অর্জন করা প্রয়োজন? এবিষয় সম্পর্কে জানার জন্য আমাদেরকে কমেন্ট করে প্রশ্ন করুন, অথবা আমাদের ফোরামে যুক্ত হয়ে আপনার অজানা বিষয় নিয়ে প্রশ্ন করুন। তাহলেই আমরা আপনার প্রশ্নগুলোর উত্তর খুব সহজেই সুন্দর ভাবে রিসোর্স সহ দেব।

গ্রাফিক ডিজাইনার হিসেবে ঘরে বসে অনলাইনে চাকরি
গ্রাফিক ডিজাইনার হিসেবে ঘরে বসে অনলাইনে চাকরি

তবে এই আর্টিকেলটিতে যেহেতু আমরা শুধুমাত্র আপনাদের কিছু আইডিয়া বা উপায় শেয়ার করে যাচ্ছি। তাই এই সম্পর্কে বিস্তারিত আলোচনা করতে চাচ্ছি না। যেন এই আর্টিকেলটি আমরা অল্প কথার মধ্যেই শেষ করতে পারি। অনলাইনে যারা কাজ করে থাকেন তাদের মধ্যে গ্রাফিক ডিজাইনারদের চাহিদা বেশি। কারণ গ্রাফিক ডিজাইন ছাড়া কোন কিছুই করা সম্ভব নয়। অনলাইনে যতগুলো কন্টেন্ট রয়েছে তার মধ্যে গ্রাফিক্স ডিজাইনাররাই শতভাগ কন্টেন্ট তৈরি করে বলে আমি মনে করে থাকি।

আরও পড়ুন:   ৭টি জনপ্রিয় অনলাইন ইনকাম সাইট - 2024

আপনার হয়তো মনে হতে পারে গ্রাফিক ডিজাইন এর কাজটি অনেক জটিল। কিন্তু যারা শুধুমাত্র একটি ছবি এডিট করতে পারে, অথবা একটি ভিডিও তৈরি করতে পারে, অথবা বিভিন্ন কাস্টম ইমেজ তৈরি করে দিতে পারে তারাই একজন গ্রাফিক ডিজাইনার। তবে এদের মধ্যে দক্ষতা অনুযায়ী একেক লেভেলের গ্রাফিক ডিজাইনার রয়েছে। কেউ অভিজ্ঞ গ্রাফিক ডিজাইনার, আবার কেউ বিগিনার লেভেলের গ্রাফিক ডিজাইনার।

যেকোনো ফাইলকে এক ভাষা থেকে অন্য ভাষায় অনুবাদ করার চাকরি:

জাতি ও স্থানভেদে ভাষা বিভিন্ন ধরনের রয়েছে। এক্ষেত্রে ব্যবসার জন্য ভাষাকে ব্যবহার করতে হলে স্থান এবং জাতিভেদে ভাষা অনুবাদ করা প্রয়োজন হয়। আপনি যদি বিভিন্ন ভাষায় পারদর্শী হয়ে থাকেন, তাহলে ভাষার অনুবাদ করে অনলাইন থেকে টাকা ইনকাম করতে পারেন। প্রফেশনাল ভাষা অনুবাদক হলে আপনি ঘরে বসে অনলাইনে চাকরি করে আয় করতে পারবেন।

পুরো বিশ্বের মধ্যে ইংরেজি ভাষা জাতীয় ভাষা হলেও অন্যান্য আরো একাধিক বাসা জনপ্রিয় রয়েছে। আর এই সকল ভাষা বাসির এরিয়া গুলোতে অনলাইনে ব্যবসা পরিচালনা করার জন্য উক্ত অঞ্চলের মানুষের ভাষায় প্রোডাক্ট এবং সামগ্রী গুলোর প্রচারণার জন্য অনুবাদ করা প্রয়োজন হয়। বর্তমান সময়ে এমন অনেকগুলো ফ্রিল্যান্স মার্কেটপ্লেস রয়েছে যেখানে ভাষার অনুবাদক খুঁজেন অনেক কোম্পানি।

সুতরাং আপনি যদি বিভিন্ন ভাষায় পারদর্শী হয়ে থাকেন, তাহলে চাকরি করে অনলাইন থেকে উপার্জন করার জন্য আপনার একটি অনলাইনে প্রোফাইল তৈরি করতে পারেন। এমনকি বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানেও ভাষার অনুবাদকদেরকে হায়ার করা হয়। যেন তাদের কোম্পানির বিভিন্ন তথ্যবহুল ফাইলগুলোকে একটি ভাষা থেকে অন্য ভাষায় রূপান্তর করা যায়।

ই-কমার্স ম্যানেজার:

ই-কমার্স বিশ্ব সম্পর্কে বর্তমান সময়ে সবাই পরিচিত। যদি আপনি একজন ই-কমার্স ম্যানেজার হিসেবে চাকরি করতে চান, তাহলে এটি আপনার জন্য সুবর্ণ সুযোগ। বর্তমানে ঘরে বসেই একজন এই কমার্স ম্যানেজার হিসেবে চাকরি করে অনলাইন থেকে টাকা আয় করা যায়। আপনি চাইলে বিভিন্ন কোম্পানিকে ইমেইলের মাধ্যমে আপনার চাকরির জন্য অফার সেন্ড করতে পারেন।

এছাড়াও একজন এই কমার্স ম্যানেজার হিসেবে চাকরি পাওয়ার জন্য বর্তমান সময়ে জব বোর্ড ওয়েবসাইটের মধ্যে বিভিন্ন সার্কুলার প্রকাশিত হয়। আপনি উপরোক্ত সার্কুলার গুলো যদি নিয়মিত দেখেন, তাহলেই আপনার জন্য একজন ই-কমার্স ম্যানেজার হিসেবে চাকরিতে আবেদন করার অনেকগুলো সুযোগ পাবেন।

বর্তমান সময়ে দারাজ, ইভ্যালি, বিডিশপ, ইত্যাদি জনপ্রিয় ই-কমার্স ওয়েবসাইট গুলো তাদের জন্য ই-কমার্স ম্যানেজার খুজে থাকেন। আপনি যদি এই ধরনের জনপ্রিয় ওয়েবসাইট গুলোতে আপনার ই-কমার্স ম্যানেজার হিসেবে জয়েন করার জন্য অফার সেন্ড করেন, তাহলে আপনি খুব দ্রুত একজন ই-কমার্স ম্যানেজার হিসেবে নিয়োগ পাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

সোশ্যাল মিডিয়া ম্যানেজার হিসেবে ঘরে বসে অনলাইনে চাকরি:

সেলিব্রেটি এবং বিভিন্ন কোম্পানি তাদের সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্ম গুলোকে ম্যানেজ করার জন্য একজন সোশ্যাল মিডিয়া ম্যানেজারকে নিয়োগ দিয়ে থাকেন। আপনি যদি অধিকাংশ সময় অনলাইনে কাটিয়ে থাকেন এবং বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহার করে থাকেন। তাহলে একজন সোশ্যাল মিডিয়া ম্যানেজার হিসেবে বিভিন্ন কোম্পানিতে ঘরে বসে অনলাইনে চাকরি করার সুযোগ রয়েছে।

সোশ্যাল মিডিয়া ম্যানেজার হিসেবে ঘরে বসে অনলাইনে চাকরি
সোশ্যাল মিডিয়া ম্যানেজার হিসেবে ঘরে বসে অনলাইনে চাকরি

আপনি আপনার ইচ্ছামত বিভিন্ন সিডিউল ঠিক করেই একাধিক কোম্পানির অনলাইন পেজ ম্যানেজার হিসেবে কাজ করতে পারেন, অথবা বিভিন্ন সেলিব্রিটিদের প্রোফাইল গুলোর ম্যানেজারের হিসেবে ম্যানেজ করতে পারেন।

আরও পড়ুন:   ৯টি ঘরে বসে ইনকাম করার সহজ উপায় ২০২৩

সোশ্যাল মিডিয়া ম্যানেজার হিসেবে কাজ করে বর্তমান সময়ে প্রতিমাসে ১৫ থেকে ২০ হাজার টাকা পর্যন্ত উপার্জন করা সম্ভব। আপনি যদি ঘরে বসে চাকরি করার জন্য আগ্রহী হয়ে থাকেন, তাহলেই একজন সোশ্যাল মিডিয়া ম্যানেজার হিসেবে ঘরে বসে অনলাইনে চাকরি করে টাকা আয় করতে বিভিন্ন সেলিব্রিটিদেরকে আপনার সোশ্যাল মিডিয়ার অভিজ্ঞতা শেয়ার করুন। এবং তাদেরকে অফার সেন্ড করুন। কয়েকবার যদি আপনি চেষ্টা করেন, তাহলেই যেকোনো একটি কোম্পানি বা ব্যক্তির হয়ে একজন সোশ্যাল মিডিয়া ম্যানেজার হিসেবে নিয়োগ পেয়ে যাবেন।

ডিজিটাল কনটেন্ট রাইটার:

ডিজিটাল কন্টেন্ট রাইটার অত্যন্ত জনপ্রিয় একটি অনলাইন এর কাজ। আমি নিজেও একজন ডিজিটাল কন্টেন্ট রাইটারের হিসেবে কাজ করি। এই কাজটি আমি করতে অনেক স্বাচ্ছন্দ বোধ করি। আপনারও যদি বিভিন্ন বিষয় নিয়ে লেখালেখির অভ্যাস থাকে, তাহলেই আপনি একজন ডিজিটাল কন্টেন্ট রাইটার হিসেবে কাজ করতে পারেন।

অনলাইনে কনটেন্ট হচ্ছে আপনার সম্পদ। যারা কনটেন্ট তৈরি করতে পারেন তাদের মূল্য অনলাইনে অপরিসীম। বিভিন্ন কোম্পানি বা ব্যক্তি তাদের প্রোফাইল বা ওয়েবসাইটের জন্য ডিজিটাল কন্টেন্ট তৈরি করার জন্য রাইটারদের নিয়োগ দিয়ে থাকেন। সাধারণত প্রতি ৫০০ থেকে ১০০০ শব্দের জন্য ৫ ডলার থেকে ২০ ডলার পর্যন্ত পাওয়া যায়।

একজন কোয়ালিটি ফুল কন্টেন্ট রাইটার হওয়ার জন্য আপনাকে প্রথমে কন্টেন রাইটিং সম্পর্কে ভালো অভিজ্ঞতা অর্জন করতে হবে। আপনার রাইটিং এর স্যাম্পল দেখানোর জন্য আপনাকে আপনার লেখাগুলো ব্যবহার করে একটি পোর্টফলিও তৈরি করতে হবে। একটি ফোর্টফোলিও ওয়েবসাইট করে ফেললে আপনি আপনার কন্টেনগুলোকে আরো সুন্দরভাবে ডেকোরেট করতে পারবেন।

যাদের ফোর্টফোলিও রয়েছে তাদের বায়ার কে আরো বেশি ইমপ্রেস করতে ফোর্টফলিওটি সাহায্য করবে। ফলে আপনি ঘরে বসে অনলাইনে চাকরি করার জন্য আপনার ফোর্টফলিও কে কাজের মূল প্রমাণ হিসেবে ব্যবহার করতে পারেন।

অনলাইন কলেজের অধ্যাপক হিসেবে ঘরে বসে অনলাইনে চাকরি:

কোর্সেরা, ইউডেমি, টেন মিনিট স্কুল এর মত জনপ্রিয় অনলাইন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সম্পর্কে হয়তো অনেকেই জানেন। আপনি হয়তো এটাই জানেন না কোর্সেরা এবং ইউডেমির এর মত অনলাইন কলেজে একজন অনলাইন অধ্যাপক হিসেবে চাকরি করা সম্ভব।

বর্তমান সময়ে এমন অনেকগুলো অনলাইন কলেজ রয়েছে যেগুলোতে ভালো মানের অনলাইন অধ্যাপক নিয়োগ দেওয়া হয়। যদি আপনি একজন অধ্যাপক হিসেবে কাজ করতে পারদর্শী হয়ে থাকেন, তাহলে আপনি অনলাইনে কলেজ পরিচালনা করে এরকম বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে ঘরে বসে অনলাইনে চাকরি এর জন্য আবেদন করতে পারেন।

অনলাইন কলেজের অধ্যাপক হিসেবে ঘরে বসে অনলাইনে চাকরি
অনলাইন কলেজের অধ্যাপক হিসেবে ঘরে বসে অনলাইনে চাকরি

চাকরির জন্য আবেদন করতে তাদের ওয়েবসাইট ও অনলাইনের বিভিন্ন মাধ্যম গুলোকে আপনি ব্যবহার করতে পারেন। যারা অনলাইনে কলেজ বা ভার্সিটি পরিচালনা করেন, তাদের অবশ্যই একটি অনলাইন ওয়েবসাইট রয়েছে। যার মাধ্যমে আপনি তাদের সাথে যোগাযোগ করতে পারেন। যদি তাদের একজন অনলাইন অধ্যাপক প্রয়োজন হয়ে থাকেন, তাহলে আপনি তাদের একজন অনলাইন অধ্যাপক হিসেবে ঘরে বসে অনলাইনে চাকরি করো টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

অনলাইন অধ্যাপক হিসেবে ছাত্র-ছাত্রীদেরকে পড়াশোনার মাধ্যমে অনলাইনে ঘরে বসে চাকরি করা সম্ভব। বর্তমান সময়ে অনেকেই অনলাইনে ঘরে বসেই একজন অধ্যক্ষ হিসেবে বিভিন্ন ভার্সিটিতে চাকরি করতেছে। যদি আপনি মনে করেন একজন অধ্যক্ষ হিসেবেই বিভিন্ন অনলাইন ভার্সিটিতে বা কলেজেই চাকরি করবেন, তাহলেই আপনি আপনার অধ্যাপক হওয়ার জন্য স্কিল গুলোকেই প্রথমে উন্নত করতে পারেন। অনলাইনে কিভাবে পড়াশোনা করাতে হয়? এবং ছাত্রছাত্রীদেরকে নিয়ন্ত্রণ করতে হয়? এবিষয়ে অনেকগুলো অনলাইন কোর্সও রয়েছে। যেগুলোর মাধ্যমে একজন অধ্যাপক হিসেবে বা অধ্যক্ষ হিসেবে আপনি কিভাবে কাজ করবেন, সে বিষয় সম্পর্কে ধারণা পেয়ে যাবেন।

আরও পড়ুন:   Affiliate marketing কি ও এফিলিয়েট মার্কেটিং কিভাবে শুরু করবো

অনলাইন আইটেম পুনরায় বিক্রয়:

রিসেলার হিসেবে কাজ করে অনলাইন থেকে ঘরে বসে ইনকাম করা সম্ভব। বিভিন্ন কোম্পানি তাদের পণ্যগুলোকে রিসেলারদেরকে অফার করেন। যেন তারা তাদের প্রোডাক্ট বিক্রি করে সেলস বৃদ্ধি করে এবং পাশাপাশি কোম্পানি এবং রিসেলার দুজনে এখান থেকে উপকৃত হতে পারে। আপনিও যদি একজন রিসেলার হিসেবে চাকরি করে অনলাইন থেকে ঘরে বসে ইনকাম করতে চান, তাহলেই বিভিন্ন কোম্পানির কাছ থেকে আপনি পণ্য সংগ্রহ করে অনলাইনে এটাকে আপনার চাকরি হিসেবে আপনি ব্যবহার করতে পারেন।

তবে এই ক্ষেত্রে আপনি কোম্পানির সাথে দুইভাবে চুক্তি করতে পারেন। একটা চুক্তি হচ্ছে আপনি কোম্পানির পণ্যগুলোকে বিক্রি করার জন্য প্রতিনিয়ত কাজ করবেন। এর জন্য আপনাকে মাসে একটি ফিক্সড স্যালারি প্রদান করতে হবে। আরেকটি চুক্তি হচ্ছে আপনি আপনার টার্গেটের বিভিন্ন ক্রেতাকে তাদের পণ্যগুলোকে বিক্রি করবেন। প্রতিটি পণ্য বিক্রি'র মাধ্যমে আপনি এখান থেকে একটি নির্দিষ্ট অংশ প্রফিট করবেন।

যদি আপনি চাকরি করার জন্য বেশি আগ্রহী হয়ে থাকেন, তাহলেই ফিক্সড সেলারির যে মাধ্যমটি রয়েছে সেটি আপনার জন্য উপযুক্ত। কেননা দ্বিতীয় যে মাধ্যমটি রয়েছে পণ্যের বিক্রির উপরেই একটি কমিশন। সেটাতে আপনি যদি কোন পণ্য বিক্রি করতে পারেন, তাহলেই সেলারি বা কমিশন পাবেন। সুতরাং অনলাইনে ঘরে বসে অনলাইনে চাকরি করার জন্য রিসেলার হিসেবে আপনি ফিক্সড স্যালারির একটি চাকরি সংগ্রহ করতে পারেন।

বর্তমান শপআপ বাংলাদেশের মধ্যে রিসেলার সুযোগ সুবিধা প্রদান করছে এরকম একটি কোম্পানি। আপনি রিসেলার হিসেবে শপআপে রেজিস্ট্রেশন করেই একজন রিসেলার হিসেবে অনলাইনে ঘরে বসেই চাকরি করতে পারেন।

আর্টিকেলটির সারমর্ম:

বাংলাদেশের মধ্যে যারা ঘরে বসে অনলাইনে চাকরি করার স্বপ্ন দেখেন, তাদের জন্য আমরা এই আর্টিকেলটিতে ৭টি এমন আইডিয়া শেয়ার করেছি। যেগুলো ব্যবহার করে আপনি ঘরে বসেই অনলাইনে চাকরি করতে পারেন। আমাদের এই আর্টিকেলটিতে শেয়ার করা আইডিয়াগুলো সম্পর্কে আপনার মতামত জানানোর জন্য নিচের কমেন্ট বক্সটি ব্যবহার করতে পারেন। অথবা আমাদের কমিউনিটিতে যুক্ত হয়ে আমাদেরকে বিভিন্ন বিষয় নিয়ে প্রশ্ন করতে পারেন। যেন আপনি অনলাইন বিজনেস সম্পর্কে জানতে পারেন। এবং কিভাবে অনলাইন বিজনেস করে লাভবান হতে পারেন? সে বিষয় সম্পর্কে আমাদের কাছ থেকে বিভিন্ন প্রশ্ন করে শিখতে পারেন।

আশা করতেছি অনলাইনে ঘরে বসেই চাকরি করার বিষয়ে আপনারা বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ বিষয় সম্পর্কে অবগত হয়েছেন। যদি আরো কোন বিষয় সম্পর্কে আপনারা জানতে চান, তাহলে অবশ্যই আমাদের সাথে যোগাযোগ করার জন্য অনুরোধ করা হচ্ছে। এবং সে সাথে আমাদের এই ওয়েবসাইটে অনলাইন বিজনেস, মার্কেটিং এবং অনলাইন ইনকাম সম্পর্কিত বিভিন্ন আর্টিকেল আমরা প্রকাশ করে থাকি। এগুলো পড়ার জন্য আপনারা নিয়মিত আমাদের ওয়েবসাইটে একটিভিটি রাখবেন।

Advertisement

ব্লগিং, এফিলিয়েট, রিসেলার ও ই-কমার্স ওয়েবসাইট তৈরি করার জন্য যোগাযোগ করুন। আমাদের এফিলিয়েট লিঙ্ক থেকে যেকোনো কোম্পানির কাছ থেকে ডোমেইন হোস্টিং ক্রয় করলে ফ্রি সাপোর্ট! বিস্তারিত জানতে WhatsApp এ মেসেজ করুন।

WhatsApp এ মেসেজ করুন

মন্তব্য করুন