বারোমাসি আম গাছের পরিচর্যা

বারোমাসি আম গাছের পরিচর্যা নিয়ে আমরা কথা বলবো। যদি আপনি এই আর্টিকেলটি সম্পন্ন করেন তাহলে কিভাবে বারোমাসি আম গাছের পরিচর্যা করতে হয় সে বিষয়ে সঠিক ধারণা পাবেন। অনেকগুলো ওয়েবসাইটে বিভিন্নভাবে বারোমাসি আমের পরিচর্যা বিষয়ে আলোচনা করা হয় কিন্তু আমরা সঠিক পদ্ধতিতে আপনাদেরকে বিষয়টি বিস্তারিত আলোচনা করব। যদি আপনি কৃষি সম্পর্কিত বিষয় গুলোকে ভালোবাসেন তাহলে অবশ্যই আপনাকে গাছের পরিচর্যা সম্পর্কে বুঝতে হবে।

তাহলে চলুন আমরা কিভাবে বারোমাসি আমের পরিচর্যা করতে হয় সে বিষয়টি জানবো। যেন আমরা আমাদের বাড়ির আশেপাশে অথবা ছাদের উপরেই বারোমাসি আম গাছ লাগিয়ে এখান থেকে পুরো বছর আম সংগ্রহ করতে পারি।

বারোমাসি আম গাছের পরিচর্যার নিয়ম

বিভিন্ন জাতের বারোমাসি আম গাছ রয়েছে তবে এখান থেকে আপনার পছন্দ অনুযায়ী যে কোন বারোমাসি আম গাছ আপনি নির্বাচন করতে পারেন। আপনার প্রয়োজন অনুযায়ী এবং ছাদের উপর নির্ভর করে আপনার বারোমাসি আম গাছ লাগাতে পারেন।

সাধারণত দোআঁশ মাটিতে আম গাছ লাগালে সেই আম গাছ থেকে বেশি ফলন পাওয়া যায়। তবে আপনি এই বারোমাসি আম গাছ টি যে কোন মাটি দিয়ে রোপণ করতে পারেন। এক্ষেত্রে দোআঁশ মাটি মিশ্রণের পাশাপাশি এটেল মাটি ও ব্যবহার করলে কোন সমস্যা নেই।

মনে রাখবেন গাছের জন্য মাটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ এ জন্য যত ভালো মাটি ব্যবহার করা সম্ভব অবশ্যই ভালো মাটি ব্যবহার করতে চেষ্টা করবেন। যেন আপনার রোপন করা বারোমাসি আম গাছ কিভাবে পরিচর্যার মাধ্যমে বেড়ে উঠতে পারে।

বারোমাসি আম গাছ রোপন করার জন্য যে মাটিগুলো আপনি সংগ্রহ করবেন সেই মাটির সাথে গরুর গোবর যুক্ত করবেন। তবে এই মাটির সাথে কাঁচা গোবর যুক্ত করা যাবে না অবশ্যই শুকনো এবং পুরানো গোবর যুক্ত করতে হবে। এতে করে আপনার বারোমাসি আমারও উর্বর মাটির শক্তি পাবে এবং দ্রুত আমগাছটি ফলন দিতে সহায়ক হবে।

আরও পড়ুন:   গ্রামীণ এলাকায় লাউ চাষ পদ্ধতি জেনে নিন

এটেল মাটিতে জল ধরে রাখার ক্ষমতা বেশি এজন্য এটেল মাটি দিয়ে যদি আপনার বারোমাসি আম গাছ লাগিয়ে থাকেন, তাহলে বারোমাসি আম গাছ পরিচর্যা করার জন্য এই গাছের গোড়ায় পানি দিবেন অল্প অল্প করে যেন অতিরিক্ত পানি জমে না থাকে। কিন্তু দোআঁশ মাটির ক্ষেত্রে পানি ধরে রাখার ক্ষমতা কম থাকে এর ফলে এই দোআঁশ মাটি দিয়ে যদি আপনি বারোমাসি আম গাছ লাগিয়ে থাকেন, তাহলে বেশি করে পানি দিবেন যেন আমগাছ সঠিকভাবে পানি গ্রহণ করতে পারে।

ড্রাগন ফল চাষ পদ্ধতি ও ড্রাগন ফল এর উপকারিতা

টপের মধ্যে যদি আপনি বারোমাসি আম গাছ লাগিয়ে থাকেন, তাহলে অবশ্যই 12 ইঞ্চির উপরে একটি ভালো টপ ব্যবহার করার চেষ্টা করবেন। যেন পর্যাপ্ত পরিমাণ মাটি টপের মধ্যে ধারণ করতে পারে। বারোমাসি আম গাছ গুলো যেহেতু আপনার টবের মাটি থেকে শক্তি গ্রহণ করবে এজন্য আপনাকে 12 ইঞ্চি উপরে টপ ব্যবহার করতে হবে।

একটা বিষয় মনে রাখবেন টপের মধ্যে যখন আপনি বারোমাসি আম গাছ লাগাবেন, তখন টবের নিচে একটি ফুটো থাকবে এই ফুটোর মধ্যে দিয়ে যেন পানি গুলো দ্রুত বেরিয়ে যেতে পারে সে ব্যবস্থা রাখতে হবে যেন আপনার গাছের পানি জমে না থাকে।

পানিগুলো যদি অতিরিক্ত জমা হয়ে থাকে তাহলেও গাছের জন্য সমস্যা হয়। এই ক্ষেত্রে গাছের পরিচর্যার জন্য সমস্যা।

এর জন্য সবচেয়ে ভালো হচ্ছে ত্বকের নিচে কিছু ভালো মানের পাথর ব্যবহার করা। যেন পাথরগুলো নিচে ভালো জায়গা করে রাখতে পারে এবং পানিগুলোকে মাটি থেকে নিচের দিকে সরে যেতে সাহায্য করে।

টবের নিচে পাথর
টবের নিচে পাথর

ছবিটি আপনি একটু ভালো করে লক্ষ্য করে দেখুন, তাহলে আপনি বুঝতে পারবেন কিভাবে টবের নিচে পাথরগুলোকে স্থাপন করতে হবে।

আরও পড়ুন:   গ্রামীণ এলাকায় লাউ চাষ পদ্ধতি জেনে নিন

এখন নিচের ছবিটি একটু দেখুন তাহলে নিচের ছবিতে আপনি দেখতে পাবেন আমরা পাথরের উপরে কিছু বালি দিয়ে দিয়েছি এই বালিগুলো উপর থেকে পানিগুলো কে শোষণ করে পাথরের নিচ দিয়ে চলে যেতে সাহায্য করবে।

পাথরের উপরে বালি
পাথরের উপরে বালি

এখন টপের মধ্যে আপনি যে মাটিগুলো তৈরি করেছেন সেগুলো দিতে থাকতে হবে এবং মাটিগুলো ব্যাট ব্যাট করে দিতে হবে যেন মাটির ভেতরে থাকা হওয়াটা বের হয়ে যায়।

যার গাছ আপনি রোপন করবেন সে গাছটিতে টপের মধ্যে রোপন করার কয়েকদিন আগে থেকে পানি দেওয়া বন্ধ করতে হবে।

এরপরে আমরা গাছটি সঠিকভাবে টপের মধ্যে রোপন করবেন। এভাবেই বারোমাসি আমের চারা টপের মধ্যে রোপন করতে হয়। সবশেষে যখন রোপনের কাজ শেষ হয়ে যাবে তখন আমরা টপের মধ্যে প্রাথমিকভাবে বেশি করে পানি দিয়ে দিব। যখনই একটি নতুন চারা গাছ টবের মধ্যে লাগানো হবে তখন বেশি করে পানি দিতে হবে।

বেশি করে পানি
বেশি করে পানি

সবশেষে আপনাকে সময় নিয়ে ধৈর্য ধরতে হবে আপনার গাছটি যেন টপের মধ্যে সঠিকভাবে বেড়ে উঠতে পারে। যেহেতু আমরা টপের মধ্যে আম গাছ রোপন করবেন সেহেতু গাছটি কিন্তু অনেক বড় হবে না। কিন্তু যখনই সে টপ থেকে শক্তি গ্রহণ করা শুরু করবে তখন থেকেই কাজটি প্রতিবছর কয়েকবার করে ফল দিতে থাকবে।

আম গাছ থেকে বেশি করে ফলন পাওয়ার জন্য আপনাকে সঠিক পরিমাণ সার এবং আম গাছের পরিচর্যা করতে হবে।

বারোমাসি আম গাছের পরিচর্যা করার ক্ষেত্রে অনেকেই বিভিন্ন ছোটখাট ভুল করে থাকেন তাই যেন আপনি ভুল না করেন আমাদের এই কাজটি সঠিকভাবে অনুসরণ করবেন।

আরও পড়ুন:   ড্রাগন ফল চাষ পদ্ধতি ও ড্রাগন ফল এর উপকারিতা

অনেকেই নতুন চারা গাছ আনার পরে আমের যায় ফুল আসে সেই ফুলগুলোকে কেটে ফেলতে বলেন। আমি বলবো যদি আপনি অনেক দূর থেকে চারা গাছকে নিয়ে আসেন এবং আমের যে ফুল বা বীজগুলো আসা শুরু করে সেগুলো যদি একেবারে ঝরে যায় তাহলে আপনি রোপন করার সময় আমের ফুলের ডাঙ্গা গুলো কেটে ফেলতে পারেন। যদি আপনার ছাড়ার মধ্যে ফুলের কোন সমস্যা না থাকে তাহলে এগুলো একদমে কাটার কোন প্রয়োজন নাই।

সঠিকভাবে বারোমাসি আম গাছের পরিচর্যা করুন

সম্মানিত পাঠক আমরা এই লেখাটির মধ্যে কিভাবে বারোমাসি আম গাছের পরিচর্যা করতে হয় সে বিষয়ে আপনাদের সঠিক তথ্য গুলো আলোচনা করেছি। যদি আপনারা আমাদের আলোচনা অনুযায়ী বারোমাসি আম গাছের পরিচর্যা করেন তাহলে ভালো আমের ফলন পাবেন।

বারোমাসি আম গাছ গুলো গাছের নিচে চাষ করা যাবে না যদি আপনার সাধের মধ্যে পর্যাপ্ত পরিমাণ রোদের আলো থাকে তাহলেই আপনি বারোমাসি আমের চাষ করতে পারেন।

“বারোমাসি আম গাছের পরিচর্যা”-এ 1-টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন