দুধ দিয়ে তৈরি অসম্ভব মজাদার ডেজার্ট রেসিপি

আসসালামু আলাইকুম। সবাই কেমন আছেন? আশা করি সবাই ভালো আছেন। ভালো থাকার ট্রিপস নিয়ে আপনাদের সামনে আজও হাজির হয়েছি আমি।

আমাদের মন মাঝে মধ্যে খারপ হলে আমরা মন ভালো হয় মতো কিছু আনকমন মজাদার রেসিপি তৈরি করতে চাই। আমার এই রেসিপিটি তাদের জন্য। এমনকি প্রিয় জনের মন রাখার জন্য তৈরি করতে পারেন।

মজাদার ডেজার্ট রেসিপি

খুব অল্প উপকরণ দিয়ে এবং খুব কম সময়ে তৈরি করা যায় অসম্ভব মজাদার ডেজার্ট রেসিপি। হঠাৎ করে বাড়িতে কেউ মেহমান আসলে তাদেরকে ঝটপট তৈরি করে দিন আমার এই মজাদার ডেজার্ট রেসিপিটি।

এছাড়া আপনারা চাইলে যেকোনো সময় তৈরি করে ফ্রিজে রেখে দিতে পারেন। ফলে যখন তখন কেউ আসলে কি দিব এই চিন্তাটা মাথা থেকে চলে যাবে। ঝটপট ফ্রিজ থেকে বের করে দিতে পারেন। এমনকি বাচ্চাদের জন্য খুবই হেলদিকর হবে।

চলুন এবার জেনে নেওয়া যাক অসম্ভব মজার দুধের তৈরি ডেজার্ট রেসিপি করতে কি কি উপকরণ প্রয়োজন :

  • তরল দুধ। (এক লিটার)
  • ঘন দুধ। (২০০গ্রাম)
  • বাটার। (২০গ্রাম)
  • ময়দা। (১৫০গ্রাম)
  • নারকেল গুড়ো। (পরিমাণ মতো)
  • বাদাম। (পরিমাণ মতো)

তো বন্ধুরা জেনে গেলেন দারুণ স্বাদের রেসিপি দুধ দিয়ে তৈরি অসম্ভব মজার ডেজার্ট বানাতে কি কি উপকরণ লাগবে।
এবার জেনে নিন কিভাবে এই কম উপকরণ দিয়ে খুব অল্প সময়ের মধ্যে তৈরি করবেন দারুণ এই মজাদার ডেজার্ট রেসিপি।

আরও পড়ুন:   অসাধারণ বেগুনের রেসিপি | বেগুন অমলেট মিক্সড ফ্রাই

মজাদার ডেজার্ট রেসিপি প্রস্তুতপণালি :

১. প্রথমে একটি কড়াইতে এক লিটার তরল দুধ ঢেলে নিবেন।
২. তারপর তরল দুধের মধ্যে দিয়ে দিবেন ২০০গ্রাম ঘন দুধ।

৩. এবার চুলাই কড়াই বসিয়ে দিবেন তারপর অনেক ক্ষণ নাড়াচাড়া করে একদম মিহি করে নিবেন।
৪. তারপর দুধের মিহি করা মিশ্রণটাই ২০গ্রাম বাটার দিয়ে দিবেন।
৫. এরমধ্যে আরো দিয়ে দিবেন ১৫০গ্রাম ময়দা এবার সব গুলো দেওয়া শেষ হয়ে এলে সবগুলো একসাথে নেড়েচেড়ে মিহি হয়ে এলে চুলা থেকে নামিয়ে নিবেন।

৬. চুলা থেকে নামিয়ে ঠান্ডা করে একটা বাটিতে নিয়ে ফ্রিজে রেখে দিবেন।
৭. তারপর ফ্রিজ থেকে বের করার পর দেখবেন এইটা জমে গেছে এবার একটা পেল্টে নিয়ে সুন্দর করে চুরি দিয়ে পিজ পিজ করে কেটে নিবেন।
৮. সবশেষে এর উপর পরিমাণ মতো নারকেল গুড়ো আর বাদাম দিয়ে দিলেই তৈরি হয়ে যাবে অসম্ভব মজার দুধের ডেজার্ট।

আমার লেখা এই মজাদার ডেজার্ট রেসিপিটা আপনাদের পড়ে ভালো লেগে থাকলে বাড়িতে একবার হলেও ট্রাই করে দেখবেন। সবাই খেয়ে আপনার নাম তো করবেই করবে সাথে সাথে বলবে আরেক বার বানিয়ে খাওয়ানোর জন্য। সবাই আল্লাহর রহমতে ভালো থাকবেন। খোদা হাফেজ।

Leave a Comment