চাকরির ওয়েবসাইট থেকে ইনকাম করার পদ্ধতি | Job website থেকে আয় করুন

যারা চাকরি খোঁজেন তারা নিশ্চয়ই কোনো কোনো ওয়েবসাইট ভিজিট করেন। না হয় আপনি চাকরি সম্পর্কে কোনোকিছু জানতে পারবেন না। এভাবে কি কখনও ভেবে দেখেছেন? চাকরির এই তথ্যগুরো কিভাবে অনলাইনে পাওয়া যায়? এটার উত্তর অবশ্যই আপনাদের সবার জানা আছে। কেউ একজন অবশ্যই এই তথ্য তার ওয়েবসাইটে পোস্ট করেছে তাই আমরা এগুলো দেখতে পাচ্ছি।

আমরা যে চাকরির নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি অনলাইনে খোঁজে পার সেই বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে হাজার হাজার ছেলে মেয়ে অনলাইন থেকে ইনকাম করছে। আর এদের মধ্যে অধিকাংশ ছাত্র ছাত্রী।

এই কাজটা করা কি কঠিন?

না। একদম সহজ একটা কাজ। তাহলে কিভাবে বুঝব এটা সহজ কাজ। এটা জানার জন্য আপনারা সময় নিয়ে নিচের ভিডিওটা দেখুন। কাজ করেন বা না করেন শিখলে তো আপনার কোনো লোকসান নেই। তাহলে একটু সময় নিয়ে ভিডিও দেখে শিখলে কি আর অসুবিধা হবে?

আরও পড়ুন:   ফেসবুকে কিভাবে টাকা আয় করা যায় | ফেসবুক ইনকাম - ২০২৪

ভিডিও:

যদি আপনি ভিডিও ভালো করে দেখে থাকেন, তাহলে আপনার মোটামুটি কাজটা কিভাবে করতে হবে তা নিয়ে ধারণা হয়েছে। এরপরেও আরও অনেকগুলো গোপন কৌশল আছে যেগুলো এই কাজটা আরও সহজভাবে করতে সাহায্য করবে।

৫টি ধাপ অনুসরণ করে এই কাজটা শুরু করতে হবে

১. প্রথমে কোন ক্যাটাগরির চাকরি নিউজ নিয়ে কাজ করবেন তা ঠিক করতে হবে।

যেমনঃ আপনি চাইলে শুধুমাত্র সরকারি চাকরির নিউজ পোস্ট করে কাজ করতে পারেন, শুধু প্রাইভেট কোম্পানির চাকরি নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ নিয়ে কাজ করতে পারেন, অথবা সরকারি এবং বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে নিউজ নিয়ে কাজ করতে পারেন।

২. একটা চাকরির ওয়েবসাইট করার সিদ্ধান্ত নিতে হবে।

একটা ওয়েবসাইটে করার জন্য কিছু টাকা খরচ করতে হয়। আপনি যেহেতু পড়াশোনা করেছেন, তাই আপনাকে এবিষয়ে বেশি বুঝানোর প্রয়োজন নেই। একটা ওয়েবসাইট তৈরি করতে একটা ডোমেইন নাম কিনতে হয়। এটা ৭০০ থেকে ১২০০ টাকার মধ্যে পাওয়া যায়।

আর এই ডোমেইনটা কে হোস্ট করার জন্য একটা হোস্টিং এর প্রয়োজন হয়। হোস্টিং ১৫০০ টাকা থেকে ৫,০০০ হাজার টাকার মধ্যে পাবেন। হোস্টিং এর উপর নির্ভর করে আপনার ওয়েবসাইটের মান ভালো খারাপ হতে পারে। এজন্য অবশ্যই ভালো হোস্টিং ব্যবহার করতে হবে।

ফেসবুকে অনলাইন ব্যবসা | Facebook Business শুরু করার ৪টি ধাপ

এরপরে ডোমেইন ও হোস্টিং দিয়ে ওয়েবসাইট লাইভ করে চাকরির খবর পোস্ট করার জন্য একটা ওয়েবসাইট ডিজাইন করতে হবে। এর জন্য একটা থিম ক্রয় করতে হবে। একটা থিম ৩০০০ থেকে ৫০০০ টাকার মধ্যে পাবেন।

আরও পড়ুন:   সমবায় সমিতির সংজ্ঞা, প্রকারভেদ, সুবিধা, ও গুরুত্ব

সম্পূর্ণ পড়ুনঃ তাহলে জানতে পারবেন একদম কম টাকায় কিভাবে চাকরি ওয়েবসাইট করবেন।

উপরে যে আলোচনা করেছি তা আপনাদের কাছে অনেক জটিল মনে হচ্ছে। আসলে এই কাজের জন্য আপনাকে এতো কষ্ট করতে হবে না। ডোমেইন, হোস্টিং, থিম, ডিজাইনের কাজ কিছু আপনাকে করতে হবে না।

বর্তমানে আপনি এমন অনেক ডেভেলপার কে পাবেন, যারা খুব কম টাকায় এই কাজগুলো করে দেন।

তারা কিভাবে এই কাজ কম টাকায় করে?

কারণ তাদের কাছে আগে থেকে অনেকগুলো রেডিমেড প্রজেক্ট থাকে, এবং অনেকগুলো কোম্পানির সাথে তারা কাজ করে। ফলে সবকিছু কম টাকায় আপনাকে দেওয়ার পরেও তারা প্রফিট করতে পারে।

ওয়েবসাইট তৈরির ঝামেলা আপনি না নিয়ে এমন কাউকে দিয়ে একটা ওয়েবসাইট করিয়ে নিন। কারণ প্রাথমিকভাবে আপনি ডিজাইন করতে গেলে বিভিন্ন সমস্যা হবে। কিন্তু ডিজাইন করে নিয়ে কাজ করলে আর ঝামেলা হবে না। সবকিছু রেডি করা থাকবে।

কি কি উপায়ে চাকরির ওয়েবসাইট থেকে ইনকাম করা যায়?

ভাই একাধিক উপায়ে একটা ওয়েবসাইট থেকে ইনকাম করা যায়। এখানে আমি কমন কয়েকটি উপায় আপনাদের বলছি। গুগল বিজ্ঞাপন দেখিয়ে ইনকাম করা যাবে, সাবস্ক্রিপশন ফি থেকে ইনকাম করা যাবে, কোম্পানির স্পনসরশিপ থেকে ইনকাম করা যাবে, ইত্যাদি।

অনেকেই হয়তো এই মাধ্যমে গুলো কিভাবে ব্যবহার করতে হয় তা জানেন না। এটা প্রথমে আপনাদের জানার প্রয়োজন নেই। আপনি যার কাছ থেকে ওয়েবসাইট তৈরি করবেন, তার কাছ থেকে সাহায্য নিতে পারেন।

আরও পড়ুন:   মেয়েদের ঘরে বসে আয় করার ১০টি সহজ উপায় - ২০২৩

শেয়ার বাজারে কিভাবে বিনিয়োগ করব – বিস্তারিত

কাজ শুরু করলে বিষয় গুলো বুঝতে একটুও জটিল মনে হবে না।

গুগল বিজ্ঞপন থেকে কিভাবে টাকা আসে?

জেনে নিন গুগল বিজ্ঞপন থেকে কিভাবে টাকা আসে। ভিডিও দেখলে সহজে বুঝতে পারবেন:

কোনো ডেভলপারের সন্ধান না পেলে কি করবেন?

অনেকেই এই সমস্যায় পড়তে পারেন। যদি আপনার পরিচিত কোনো ডেভলপারের খোঁজ না পান, তাহলে আমাদের কাছ থেকে ওয়েবসাইট করতে পারেন। আমরা অবশ্যই সবকিছু সেটআপ থেকে শুরু করে আপনার প্রথম ইনকাম শুরু হওয়া পর্যন্ত সাপোর্ট দেব।

ইনকাম করতে কত সময় লাগে?

এটা আপনার কাজের উপর নির্ভর করে। তবে একটা ওয়েবসাইট থেকে সাধারণত ১ মাসের মধ্যে ইনকাম শুরু করা যায়। অনেকের আবার ১ থেকে ৩ মাস সময় লাগে। কাজ যত ভালো করবেন, ততই দ্রুত ইনকাম শুরু হয়ে যাবে।

আমার নিজের অভিজ্ঞতা থেকে বলছি, একটা ওয়েবসাইট থেকে ১০ থেকে ১৫ দিনের মধ্যেও ইনকাম শুরু করা যায়। টোটাল নির্ভর করে আপনার কাজের উপর।

আমাদের কাছ থেকে ওয়েবসাইট করতে চাইলে WhatsApp এ যোগাযোগ করুন। কল করার প্রয়োজন নেই। শুধুমাত্র মেসেজ করুন।

WhatsApp এ মেসেজ করতে ক্লিক করুন

মন্তব্য করুন