অনলাইন বিজনেস প্লাটফর্ম তৈরি করুন: প্রযুক্তির সময়ে বেকার থাকার কোনো সুযোগ নেই

বেকারদের হতাশা ছাড়া আর কোনো সহপাঠী থাকেনা। এই প্রযুক্তির সময়ে বেকার থাকার কোনো সুযোগ নেই। শুধু শুধু খারাপ চিন্তা না করে চাকরি খোঁজার পাশাপাশি নিজের একটা অনলাইন বিজনেস প্লাটফর্ম তৈরি করুন।

📌 লেখাটি সম্পূর্ণ পড়ুন, কারণ বাস্তবতা কঠিন। আমার লাভ ছাড়া আমি আপনাকে সাহায্য করবো না। কেউই করবেনা। ⏰

কিভাবে অনলাইনে একটা প্লাটফর্ম তৈরি করবেন?

ভাই আপনি যদি আমার কাছ থেকে যেকোনো অনলাইন বিজনেস শুরু করার জন্য ওয়েবসাইট করেন, তাহলে আপনার প্রথম ইনকাম শুরু হওয়া পর্যন্ত আমি আপনার সাথে থাকব – ইনশাআল্লাহ।

কেন থাকবো?

আপনাকে ওয়েবসাইট করে দিলে আমার কিছু টাকা প্রফিট হবে। এজন্য আপনার প্রফিট শুরু হওয়া পর্যন্ত আমিও আপনাকে সাহায্য করবো।

কিছু টাকা প্রফিট দিয়ে কিভাবে আপনি চলবেন?

ভাই আমি শুধুমাত্র আপনার ওয়েবসাইট তৈরি করে দিচ্ছি না। আপনি ছাড়াও আমার আরও অনেকগুলো ক্লায়েন্ট আছে যাদের মাধ্যমে কিছু + কিছু + কিছু করে ভালো ইনকাম হয়।

আমিও কি ভালো ইনকাম করতে পারবো?

অবশ্যই পারবেন। না পারলে অন্যরা হুদাই কাজ করে যেতেন? আমি আপনাকে গাইড করবো। আপনার শুধুমাত্র এগিয়ে যাওয়ার চেষ্টা থাকতে হবে।

প্রথম থেকেই কি লাখ টাকা ইনকাম হয়?

মিথ্যা স্বপ্ন দেখবেন না। প্রথম শুরু হয় কম থেকে, তবে লাখ টাকা ইনকাম অবশ্যই সম্ভব। তবে আমিও এখন পর্যন্ত প্রতিমাসে লাখ টাকা ইনকাম করতে পারিনি। অনেকেই প্রশ্ন করবে আমি লাখ টাকা ইনকাম করতে পারছি কি-না। তাই আপনাদের প্রশ্নের উত্তর দিয়ে দিলাম।

আরও পড়ুন:   ৫০টি Small Business Ideas 2024: ব্যবসা করে উপার্জন করুন

আপনার কাজ ও স্বপ্ন আপনার টার্গেট পূরণ করতে সবকিছু সহজ করে দিবে। ভাই আগে কাজ তো করতে হবে।

Tawhid
Tawhid

উপরের ছবিটি সরকারি প্রতিষ্ঠান এলইডিপি'র কাছ থেকে টপ-অনলাইন আর্নার হিসেবে পুরস্কার গ্রহণ করার ছবি। এটি আমাকে এমনে দেয়নি। অনলাইন থেকে ইনকাম করতে সম্ভব হয়েছি তাই আমাকে দেওয়া হয়েছে।

অনলাইনে ব্যবসা কি দিয়ে শুরু করা যায় আইডিয়া নেই?

যা করতে বলবো তা অবশ্যই আপনার জীবনে ভবিষ্যতে কাজে আসবে এমন কিছু শুরু করতে বলবো। ১০০% গ্যারান্টি দিব যেকোনো একটা শুরু করলে ভবিষ্যতে বিভিন্ন বিষয়ে আপনার এই কাজের অভিজ্ঞতা কাজে লাগবে। আপনার ওয়েবসাইটটি থাকুক বা না থাকুক।

ব্যবসাগুলো শুরু করার আগে অবশ্যই একটা ডোমেইন ও হোস্টিং রেজিষ্ট্রেশন করে নিতে হবে। পরিক্ষা করার জন্য হলেও এগুলো লাগবে।

১. মাইক্রো ব্লগিং –

এটি খুবই সহজ। শুধুমাত্র লিখতে জানতে হবে। কিভাবে লিখবেন? জানা নেই? কোনো সমস্যা নেই। আমি শিখিয়ে দেব। বিষয়টি খুব সিম্পল কিন্তু কঠিনভাবে নিবেন না।

আপনি এই লেখাটি যে ব্লগে এসে পড়তেছেন, এই ব্লগের মাধ্যমে আমি ইনকাম করছি। এগুলো আমি লিখছি চাকরির পাশাপাশি অবসর সময়ে। আমি যদি সকাল ১০টা থেকে রাত ১০টা চাকরি করার পরে এগুলো করতে পারি তাহলে আপনাকে রোড-ম্যাপ  দেওয়ার পরেও কি আপনি পারবেন না?

২. টার্গেট এফিলিয়েট কমিশন ব্যবসা –

আমার এই ব্লগ ওয়েবসাইটটি হচ্ছে মাল্টিপল নিশের উপর। এই ওয়েবসাইট থেকে ইনকাম করা আমার জন্য জরুরি না। এটা শুধুমাত্র আমার একটা কাজের পোর্টফলিও হিসেবে তৈরি করা। প্লাস, এটার মাধ্যমে আমি আমার মার্কেটিং করি।

আরও পড়ুন:   ই কমার্স এর সুবিধা ও অসুবিধা নিয়ে বিস্তারিত জানুন

কিন্তু আপনি যখন একটা এফিলিয়েট কমিশন ইনকামের ওয়েবসাইট করবেন, তখন সেটা এমন হবে না। ডিজাইন ঠিক থাকলেও লেখা বা কন্টেন্ট থাকবে একটা বিষয়েয়র উপর। যেটাকে বলে মাইক্রো-নিশ। এর ফলে আপনার এফিলিয়েট কমিশন ইনকাম করতে সহজ হবে। আপনি যথেষ্ট ভালো ইনকামও করতে পারবেন।

আরও বাকি সিক্রেট কাজ করার পাশাপাশি শিখাব।

মনে রাখবেন এটা কোনো কোর্স না। আমি আপনাদের জাস্ট গাইড করবো যেন আপনি আমার কাছ থেকে ওয়েবসাইট করে কিছু একটা করতে পারেন।

৩. রিসেলার ওয়েবসাইট করে ব্যবসা শুরু করুন –

এই ব্যবসায় সেল আসলে আপনার লাভ, সেল না আসলেও কোনো সমস্যা নেই। প্রোডাক্ট থাকবে অন্যজনের বিক্রি করে লাভ করবেন আপনি। ডেলিভারিও আপনাকে করতে হবে না।

কিভাবে কি করতে হবে সব আমি আপনাকে গাইড করবো। তাই আপনার চিন্তা কম থাকবে। আপনি শুধু যেভাবে বলবো সেভাবে কাজ করবেন। সফলতা অটোমেটিক আসবে।

৪. ড্রপ শিপিং ব্যবসা করুন –

এটা রিসেলার ব্যবসার মতোই কিন্তু এটা আপনাকে আন্তর্জাতিকভাবে করতে হবে। কারণ বাংলাদেশে এটা লাভজনক না। কিন্তু বাংলাদেশে বসে এটা করাটা লাভজনক। এটার জন্য নিজের একটা ওয়েবসাইটের পাশাপাশি পেমেন্ট গেটওয়ে সুবিধা রাখতে হয়। যারা প্রফেশনাল অনলাইনে কাজ করেন তাদের জন্য এটি অসাধারণ।

আপনার কাছে যদি ইন্টারন্যাশনাল পেমেন্ট গেটওয়ে সুবিধা থাকে তাহলে আপনিও এটি করতে পারেন। প্রফিট হবে? জ্বি ভাই। ১০০% হবে।

৫. ই-কমার্স শুরু করুন –

ছোট একটা ওয়েবসাইট করে এটা শুরু করতে পারেন। প্রথম থেকে বেশি প্রোডাক্ট নিয়ে শুরু করার প্রয়োজন নেই। ১ থেকে ৩ টি প্রোডাক্ট নিয়ে ব্যবসাটি শুরু করুন। ধীরে ধীরে ক্লায়েন্ট বৃদ্ধি করার মাধ্যমে আপনার ব্যবসা অন্য পর্যায়ে নিয়ে যেতে পারবেন।

আরও পড়ুন:   ২৫টি বর্তমানে সবচেয়ে লাভজনক ব্যবসা ২০২৪ (টিপস ও গাইড সহ)

আপনার কোনো জ্ঞান নেই? আপনাকে কি কি করবেন দেখিয়ে দিলে হবে না? যদি হয় তাহলে সম্ভব।

আরও যা যা করতে হবে তা আপনি কোন ব্যবসাটি শুরু করতে চান তার উপর নির্ভর করে। পরবর্তী বিস্তারিত আলোচনা হবে কাজ করার মাধ্যমে।

আপনি আপনার ব্যবসার ওয়েবসাইট করার জন্য আমাকে WhatsApp এ মেসেজ করুন: +8801316520382 সরাসরি কল করেও কথা বলতে পারেন। আমাকে আমার ফেসবুকে মেসেজ চাইলে করতে পারেন।

Live Chat With Us on WhatsApp

আমার ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করে যুক্ত থাকতে চাইলে আপনার চ্যানেল সাবস্ক্রাইব করে আসুন।

“অনলাইন বিজনেস প্লাটফর্ম তৈরি করুন: প্রযুক্তির সময়ে বেকার থাকার কোনো সুযোগ নেই”-এ 3-টি মন্তব্য

মন্তব্য করুন